রোজায় স্তন্যদানকারী মায়েদের স্বাস্থ্য রক্ষায় করণীয়

muslim-mother-and-baby2-e1283677383134রোজায় স্তন্যদানকারী মায়েদের রোজা রাখতে গেলে একটু ভেবে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। ভাবতে হয় সন্তানের বয়স কেমন আর সে এখনো সম্পূর্ণ আপনার বুকের দুধের উপর নির্ভরশীল কিনা। আবার এটাও ভাবতে হয় আপনার নিজের স্বাস্থ্য ঠিক থাকবে তো রোজার সময়টাতে। তাই রোজার সময়টাই মায়েদের একটু সচেতন থাকতে হয় আর কিছু পরামর্শ মেনে চলতে হয়।

রোজায় স্তন্যদানকারী মায়েদের করণীয়ঃ

  • ইফতারিতে স্বাস্থ্যকর খাবার দিয়ে ইফতার করুন। খাবার খাওয়ার সময় এটা নিশ্চিত করুন যে খাবারটি আপনার আর আপনার সন্তানের জন্য পর্যাপ্ত প্রোটিন  সরবরাহ করবে কিনা।
  • সেহেরীতে অবশ্যই দুধ রাখতে ভুলবেন না, সাথে সবজি, চর্বি বিহীন মাংস ও রুটি যোগ করতে পারেন। এইসব খাবার আপনার  শরীরের পুষ্টি চাহিদা পূরণ করবে। তাজা ফল আর এক গ্লাস দুধ আপনার সন্তানের জন্য ও খাদ্য তৈরীতে সাহায্য করবে।
  • সারাদিনে একটু করে বিশ্রাম নিন আর সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতে থাকুন। সারাদিনের রোজা শেষে ভাজা পোড়া খাওয়া বাদ দিয়ে একটু তরল জাতীয় খাবার খেতে চেষ্টা করুন। যেমন ফলের রস, দুধ, টাটকা রসালো ফল ইত্যাদি।
  • সারাদিনে রোজা শেষে অবশ্যই মাত্রাতিক্ত চা অথবা কফি খাবেন না। খুব বেশী হলে দুই কাপ চা বা কফি খেতে পারেন, অতিরিক্ত চা বা কফি পান আপনার শরীরে পানি ঘাটতি সহ তৃষ্ণা বৃদ্ধি করতে পারে।
  • স্তন্যদানকারী মায়েরা রোজা রাখতে চাইলে মাল্টিভিটামিন ও মাল্টি মিনারেল সাপ্লিমেন্ট নিতে পারেন। আর  সেহেরীতে ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করুন।

কোরআনে স্তন্যদানকারী মায়েদের রোজা রাখা সংক্রান্ত বিশদ ব্যাখ্যা দিয়েছেন, সেখানে উল্লেখ আছে দুই বছর মায়ের বুকের দুধই সন্তানের জন্য প্রধান খাবার তাই রোজা রাখাতে যদি আপনার আর আপনার সন্তানের স্বাস্থ্যহানীর সম্ভাবনা থাকে তাহলে ভালো করে বিবেচনা করে তারপর রোজা রাখুন।

পরামর্শ.কম এ স্বাস্থ্য ও রূপচর্চা বিভাগে প্রকাশিত লেখাগুলো সংশ্লিষ্ট লেখকের ব্যক্তিগত মতামত ও সাধারণ তথ্যের ভিত্তিতে লিখিত। তাই এসব লেখাকে সরাসরি চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য অথবা রূপচর্চা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ হিসেবে গণ্য করা যাবে না। স্বাস্থ্য/ রূপচর্চা সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য কিংবা চিকিৎসার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের/বিউটিশিয়ানের শরণাপন্ন হোন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।

Leave a Reply