প্রাণবন্ত ও হাস্যোজ্জ্বল থাকতে Relaxation বা শরীর শিথীলকরণ: পর্ব-২

Relaxation-Techniques-For-Stress-Reliefগত পর্বে আমরা নিঃশ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম শিখেছিলাম। এবারে নতুন আরেকটি শরীর শিথিলকরণ ব্যায়াম শিখব। শরীর শিথিলকরণের জন্য এই ব্যয়ামটিও অনেক সহায়ক।

পদ্ধতি-২ ( মনের বাগান)

  • শুরুতে একটি আরামদায়ক ও নিরিবিলি স্থানে হেলান দিয়ে বসুন। ধীরে ধীরে চোখ বন্ধ করুন।
  • এবারে গভীরভাবে লম্বাকরে এক থেকে দু’বার নিঃশ্বাস গ্রহণ করুন এবং ধীরে ধীরে ছেড়ে দিন।
  • এখন স্বাভাবিক নিঃশ্বাস গ্রহণ করুন এবং পুরো মনোযোগ নিজের দিকে দিন।
  • কল্পনা করুন একটি খোলা জায়গাতে আপনি দাঁড়িয়ে আছেন। সামনে বিশাল বড় খোলা জায়গা। যতটুকু জায়গা ইচ্ছা হয় আপনি ঘুরে দেখুন এবং আপনার মনের বাগান করার জন্য ‍জায়গা নির্বাচন করুন। যতটুকু বড় বা ছোট আকার আপনি দিতে চান ঠিক ততটুকু নিন।
  • এবারে বাগানের মাটিতে ঘাস বা ফুলের গাছ লাগান। আপনার পছন্দের সবকটি ফুল বা ফল বা যে গাছটি আপনি চান নিয়ে আসুন এবং লাগিয়ে দিন। গাছগুলো বড় বা ছোট হতে পারে। বাগানের কোন দিকে কিভাবে গাছ লাগাবেন সেটি সম্পূর্ণ আপনার পছন্দ ও রুচি অনুযায়ী করুন।
  • বাগানের চারিদিকে কি থাকবে সেটি তৈরি করুন। আপনি কি কোন বেড়া বা দেয়াল দিয়ে সংরক্ষিত রাখতে চান কিংবা ইচ্ছা হলে চারপাশটা উন্মুক্ত রাখতে পারেন।
  • আপনার মনের এই বাগানটি কিসের পাশে আছে সেটি নির্ধারণ করুন। যেমন এটি কোন নদীর ধারে বা ঘন জঙ্গলে বা পাহাড়ে বা রাস্তার ধারে যে জায়গায় থাকলে আপনার ভাল লাগবে সেখানে কল্পনা করুন।
  • আপনি বাগানের মধ্যে আর কি কি ল্যান্ডস্কেপিং করতে চান দেখুন। সাজানোর জিনিস বা চাইলেই নতুন কোন আঙ্গিকে এটি তৈরি করতে পারেন।
  • বাগানের মাঝে একটি পানির ফোয়াড়া বা পুকুর বা যেকোন water body বসিয়ে দিন। পানিতে ইচ্ছা হলে মাছ বা ঝিনুক বা যেমনটা চান তেমনটি রাখতে পারেন।
  • এবারে বাগানের ভেতরে কিছু প্রাণী যেমন – পাখি, খরগোশ, হরিণ বা যে কোন প্রাণী নিয়ে আসুন যেটা আপনি পছন্দ করেন। তাদের নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে ঘুরে বেড়ানো অবলোকন করুন।
  • এখন বাগানে বসার জন্য একটি জায়গা তৈরি করুন। যেখানে আপনি অনেক প্রশান্তি নিয়ে আরামের সথে বসতে পারবেন।
  • বাগানের ভেতরের কাজ শেষ হয়ে গেলে একটু চারদিক ঘুরে দেখুন আর কোন পরিবর্তন বা সংযোজন করতে চান কিনা। চাইলে সেটি করুন।
  • বাগানের পুরোটা ঘুরে বেড়ান এবং এর মুক্ত ও বিশুদ্ধ বায়ু বুক ভরে গ্রহণ করুন। বাতাসের শব্দ পাখির কিচির মিচির কান পেতে শুনুন।
  • এবারে বাগানে আপনার পছন্দের সেই মানুষগুলোকে আনুন যাদের আপনি খুব পছন্দ করেন। হতে পারে সেটি একজন বা দুইজন বা অনেকজন। তাদেরকে বাগানের প্রতিটা জায়গা ঘুরিয়ে দেখান। আপনার মনের বাগানটিকে আপনি যে এত চমৎকার ভাবে তৈরি করেছেন তা তাদেরকে দেখান।
  • দেখুন তারা আপনার বাগানের সৌন্দর্য্য ও সাজানোর প্রশংসা করছে। খুব খুশী হয়ে দেখছে এই চমৎকার আয়োজন। তাদেরকে ধন্যবাদ দিন।
  • ধীরে ধীরে তাদেরকে বাগান ঘুরানোর শেষে একে একে বিদায় দিন।
  • এখন আপনি আরো একবার পুরো বাগানটা ঘুরে আসুন। সবগুলো উপাদান যা যা দিয়ে , যে রং বা যে প্রাণী বা উপকরণ দিয়ে বাগানটি সাজিয়েছেন এক পলক ঘুরে দেখুন। দেখা শেষ হলে ধীরে ধীরে প্রক্রিয়াটি থেকে বের হয়ে আসুন এবং চোখ মেলে তাকান।

*এটি শুধুমাত্র শরীর শিথিলকরণ ব্যায়াম নয়, এটি আপনার একটি নিরাপদ ও পছন্দের জায়গা। যখন ইচ্ছ হবে আপনি চাইলেই সেখানে যেতে পারেন। এর সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে পারেন। এত সুন্দর ও মনোমুগ্ধকর মনের বাগান তৈরির জন্য আপনাকে অনেক অভিনন্দন।

শরীর শিথিলকরণ সম্পর্কিত আরও লেখা পড়ুনঃ

১. প্রাণবন্ত ও হাস্যোজ্জ্বল থাকতে Relaxation বা শরীর শিথীলকরণ: পর্ব-১
২. প্রাণবন্ত ও হাস্যোজ্জ্বল থাকতে Relaxation বা শরীর শিথীলকরণ: পর্ব-৩
৩. প্রাণবন্ত ও হাস্যোজ্জ্বল থাকতে Relaxation বা শরীর শিথিলকরণ: পর্ব-৪
৪. প্রাণবন্ত ও হাস্যোজ্জ্বল থাকতে Relaxation বা শরীর শিথীলকরণ: পর্ব-৫

এছাড়া পড়ুন মেডিটেশন নিয়ে পরামর্শ.কম এর ধারাবাহিক লেখা, এই লিঙ্কে

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।

Leave a Reply