কম্পিউটারের শর্টকাট ভাইরাসের যন্ত্রণা? দূর করুন সহজেই

shortcut-virus-compressorআপনার পেনড্রাইভ; কম্পিউটার অথবা হার্ডডিস্ক কি অপ্রয়োজনীয় শর্টকাট ভাইরাস তৈরী করছে যা আপনি বারবার মুছে ফেলা বা রিমুভ করার পরও ফিরে আসছে।

এই শর্টকাট ভাইরাস বা ত্রুটি (bug) একটি সাধারণ সমস্যা হলেও অনেকে একটাকে মুছে ফেলার জন্য ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে থাকেন যে কিভাবে এই ভাইরাস দূর করা যায়।

যাই হোক এই শর্টকাট ভাইরাস দূর করার পদ্ধতি জানার আগে জানব এটি আসলে কি আর কিইবা এর কার্যক্ষমতা।

শর্টকাট ভাইরাস কি?

শর্টকাট ভাইরাস আসলে হুডিনি ওর্ম. (HOUDINI WORM) যা কিনা সারাবিশ্বের বহুসংখ্যক কম্পিউটারে আক্রমণ করেছিল। শর্টকাট ভাইরাস আসলে পেনড্রাইভ দিয়ে ছড়িয়ে পড়লেও এটি ইউএসবি জাতীয় যন্ত্রাংশ যেমন মেমোরি কার্ড; মোবাইল; ডিজিটাল ক্যামেরা কিংবা এক্সটার্নাল হার্ডডিস্ক দিয়ে ছড়িয়ে পড়তে সক্ষম. একবার যদি আপনি শর্টকাট ভাইরাসে আক্রান্ত এসব ডিভাইস হতে কোন ফাইল কপি করেন তাহলে আপনি শুধু ফাইলের প্রিভিউ দেখতে পাবেন, আর আপনার কম্পিউটারও শর্টকাট ভাইরাসে আক্রান্ত হবে। ফাইলটিতে একবার ক্লিকেই এটি“.vbs” নামে ফাইল / স্ক্রিপ্ট কম্পিউটারে চালু হয় এবং সেইসাথে এটি দুই কপি কোড তৈরী করে এক কপি রেজিস্টারি কপি করে টেম্পরারি ব্যবহারের জন্য আর অন্যকপি স্টার্ট/রিস্টার্ট হবার জন্য।

আপনি হয়তো ভাবতে পারেন শর্টকাট ভাইরাসের সমস্যার সমাধান হল বুঝি. কিন্তু আপনি ভাইরাস দ্বারা আবারও আক্রান্ত হবেন কম্পিউটার স্টার্ট বা রিস্টার্ট করলে ।

আসলে আপনার কম্পিউটারটি শর্টকাট ভাইরাসে আক্রান্ত হলে ভাইরাসটি সিস্টেমে যুক্ত ইউএসবি জাতীয় ডিভাইসগুলোকে আক্রমণ করে। আর তাই কোন এক্সটার্নাল ডিভাইসই নিরাপদ নয়।

শর্টকাট ভাইরাসের সক্ষমতা

একবার আপনার কম্পিউটারটি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে এটি সি ও সি সার্ভার (C & C server ) সাথে সংযুক্ত হতে পারে এবং আপনার প্রয়োজনীয় সব তথ্য চুরি করতে পারে । সেইসাথে আপনার প্রয়োজনীয় ফাইল ডাউনলোড সহ অন্যান্য ম্যালোয়্যার আপলোড ছাড়াও ভাইরাস কোডের আপডেট করতে পারে ।

আমি পর্যায় ক্রমে বর্ণনা করব কিভাবে এর হতে নিস্তার পাবেনঃ

পদ্ধতি ১:(Autorun Exterminator এর মাধ্যমে ) 

 ধাপ ১:

আপনার আক্রান্ত ডিভাইস যুক্ত করুন আর দেখুন কোন ড্রাইভ বা ডিভাইস হিডেন নেই। আর এই জন্য আপনি open folder and search options–> view–>select show hidden files and folders–> apply changes.অনুসরণ করুন।

iconcache-folder-options

ধাপ ২:

ডাউনলোড করুন Autorun Exterminator Extract করুন আর আপনার আক্রান্ত ডিভাইসটি AutoRunExterminator.exe ক্লিক করে ভাইরাস রিমুভ করুন ।AutoRunExterminator

পদ্ধতি ২: ( malwarebyte’s anti-malware এর মাধ্যমে )

ডাউনলোড করুন Malwarebyte’s Anti-Malware । ইনস্টল করে আপডেট দিয়ে আপনার কম্পিউটারটি স্ক্যান করলে শর্টকাট ভাইরাস রিমুভ হয়ে যাবে ।

পদ্ধতি ৩: (usbfix এর মাধ্যমে)

প্রথমে ইউএসবি ফিক্স সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করুন। তারপর সাধারণ সফটওয়্যার এর মত সফটওয়্যারটি ইন্সটল করুন। ইন্সটল করার পর নিচের ধাপ গুলো দেখুন। সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে এইখানে ক্লিক করুন

ধাপ ১:
প্রথমে সফটওয়্যারটি ওপেন করুন এই রকম একটি উইন্ডো আসবে। এইখানে ক্লিক করুন।

ধাপ ২
এর পর আপনার কম্পিউটার এ ভাইরাস আছে কি না তা সে চেক করবেUntitled-1

ধাপ ৩
Research করার পর আবার Clean এ ক্লিক করুন তারপর দেখবেন আপনার সব ড্রাইভ এ ভাইরাস Clean করবে। Clean করা শেষ হলে আপনাকে একটি Report দেবে।2014-02-14_112103

ধাপ ৪
তারপর আপনি আপনার হার্ডডিস্ক এ ঢুকে শর্টকাট হয়ে যাওয়া ফোল্ডার টি ডিলিট করুন। ডিলিট করার পর দেখবেন ওই ড্রাইভ এ আর  ফোল্ডার শর্টকাট হবে না।

পদ্ধতি ৪ (cmd এর মাধ্যমে)

ধাপ ১
সর্বপ্রথম আপনার পেন্ড্রাইভকে কানেক্ট করুন। ড্রাইভ লেটারটি দেখে নিন। কী বোর্ডের CTRL+SHIFT+ESC চাপুন।

how-to-remove-shortcut-virus-from-pendrive

এছাড়াও আপনি msconfig লিখে । startup গিয়ে কোন অচেনা startup প্রোগ্রাম বন্ধ করুন। 
msconfig_startup_programs

ধাপ ২

প্রথমেই কীবোর্ড থেকে একত্রে উইন্ডোজ+w কী চাপ দিন ফলে রান প্রম্পট দেখতে পাবেন।

এবার এখানে cmd লিখে এন্টার করুন তাহলে কমান্ড প্রম্পট (command prompt) চালু হবে।এখানে নিচের কোডটি লিখুন অথবা কপি করে কমান্ড প্রম্পটে মাউসের রাইট বাটনে ক্লিক করে পেস্ট করে দিন এবং এন্টার করুন।

কোডঃ attrib -h -r -s /s /d h:\*.*

shortcut_virus_remove_bangla2

* এখানে h দ্বারা ড্রাইভ লেটার বোঝানো হয়েছে। আপনি আপনার যে ড্রাইভে পেনড্রাইভ লাগানো আছে সেই ড্রাইভের নাম লিখুন।

কাজ শেষ হলে একটি কনফার্ম মেসেজ পাবেন এবারে কমান্ড প্রম্পট বন্ধ করে দিন এবং আপনার পেনড্রাইভ চেক করে নিন দেখুন, আশা করি এতক্ষনে আপনার ফাইল আবার জায়গামত ফিরে এসেছে । 

পদ্ধতি ৫: (RescueCd এর মাধ্যমে)

এই পদ্ধতিতে আপনার যেকোন ভাইরাস রিমুভ হবে । RescueCd ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার কম্পিউটারের ভাইরাস অতি সহজে রিমুভ করতে পারেন কোন ঝামেলা ছাড়াই । এমনকি পুনরায় কম্পিউটার সেটআপ দিবার দরকার নেই । আজ কিছু RescueCd নাম দিচ্ছি । আরেক দিন কিভাবে অতি সহজে Bootable RescueCD তৈরী করবেন তা আলোচনা করব । avg-rescue-cd iUBPOrWCX5gxi kaspersky-rescue-disk-10

পদ্ধতি ৬:(Others এর মাধ্যমে)

after

এধরনের ভাইরাস থেকে বেঁচে থাকতে পূর্ব সাবধানতা

  • প্রথমেই যে ড্রাইভে ডাটা কপি করবেন বা যে ড্রাইভ থেকে ডাটা নিবেন সেই ড্রাইভটি এন্টিভাইস দিয়ে স্ক্যান করে নিন।
  • ডাটা কপি করার সময় চেষ্টা করবেন যে ড্রাইভে ডাটা কপি করবেন সেই ড্রাইভে না ঢুকে Copy to অপশন দিয়ে সরাসরি সেই ড্রাইভে ডাটা সেন্ড করতে।
  • সন্দেহজনক নামের কোন ফাইল দেখলে তাতে ভুলেও ক্লিক করবেন না। কেননা ভাইরাস ততক্ষণ পর্যন্ত ছড়ায়না যতক্ষণনা পর্যন্ত আপনি ভাইরাসের উপর ক্লিক করবেন।

ব্যক্তিগত মতামত

আমি ব্যক্তিগত ভাবে এই ভাইরাসের সম্মুখীন হইনি। এমনি খুবই কম ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছি যত দিন উন্ডোজে ছিলাম (বর্তমানে লিনাক্স )। কিন্তু ইদানীং অনেকেই আসে এই সমস্যা নিয়ে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার হল সবাই আমরা ক্র্যাক করা এন্টিভাইরাস চলাই। একটি এন্টিভাইরাসের দাম খুব বেশী নয়। সবার উচিত লাইসেন্স সহ এন্টিভাইরাস চালানো । আরেকদিন হয়ত এ ব্যাপারে বলব।

আমার জন্য দোয়া করবেন। আমিন।

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।

Leave a Reply