যেভাবে অতিরিক্ত ফেসবুকিং করা কমিয়ে দিবেন

How To Control Facebook Usageফেসবুক (facebook) পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্ক (social network) সাইট। মানুষের বেশ ভাল পরিমাণ সময় চলে যায় এই ফেসবুকে। অতিরিক্ত ফেসবুকিং এর ফলে বিভিন্ন পেশার মানুষজন তাদের প্রতিদিনকার কাজকর্ম সফলভাবে শেষ করতে পারেনা। সবারই ফেসবুকিং এর নেশা দিনের পরে দিন বেড়ে যাচ্ছে। এমন অনেকেই আছেন যারা ফেসবুকিং করার সুযোগ পেলে নিজের খাওয়ার কথা ভুলে যান। বুঝতে পারেন যে নিজের নিত্যদিনের কাজকর্মের ক্ষতি হচ্ছে কিন্তু তারপরও এটাকে জীবন থেকে দূর করতে পারছেন না।

এখানে আমি আজ “অতিরিক্ত ফেসবুকিং করা কমিয়ে দিবেন যেভাবে” এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবো। অতিরিক্ত ফেসবুকিং করা কমিয়ে দেওয়ার প্রথম উপায় হচ্ছে আপনাকে অবশ্যই আত্মবিশ্বাসী হতে হবে। প্রত্যেকটা জিনিসের ভাল দিক এবং মন্দ দিক আছে। কিন্তু অতিরিক্ত কোন কিছুই যে ভাল না সেটা ভালভাবে বুঝতে পারছেন অতিরিক্ত ফেসবুকিং করার মাধ্যমে।

বাড়িতে থাকাকালীন ফেসবুকিং করা কমিয়ে দিবেন যেভাবে(control your facebook usage at home)

  • বই পড়তে পারেন।
  • সাংসরিক কাজে মা-বাবা কে সাহায্য করতে পারেন। মা-বাবা সাথে না থাকলে স্ত্রীকে।
  • ঘুমাতে পারনে।
  • টেলিভিশন দেখতে পারেন।
  • ইনডোর গেমস খেলতে পারেন।
  • ছোট ভাই-বোন কে সময় দিতে পারেন।
  • ফ্যামিলির সাথে কোথাও ঘুরতে যেতে পারেন।

কর্মস্থলে ফেসবুকিং করা কমিয়ে দিবেন যেভাবে(control your facebook usage at office)

  • বস অথবা কলিগের সাথে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারেন।
  • ব্রেক টাইমে খাওয়ার পর রেস্ট নিতে পারেন।
  • অন্যান্য কলিগদের কাজের খোজ-খবর নেওয়া।
  • কাজ কিভাবে দ্রুত সুন্দরভাবে শেষ করবেন তা নিয়ে প্ল্যান করা।

স্টুডেন্টরা অতিরিক্ত ফেসবুকিং করা কমিয়ে দিবেন যেভাবে (how can student control their facebook addiction)

  • গল্পের বই পড়তে পারেন।
  • মা-বাবার কাজে সাহায্য করতে পারেন।
  • গেমস খেলতে পারেন।
  • বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে পারেন।

আপনি প্রতিদিন যে যে সময় ফেসবুকিং করতেন ঠিক সেই সময় উপরের কাজগুলা করলে আশা করছি আপনার অতিরিক্ত ফেসবুকিং করার নেশা (facebook addiction) দূরীভুত হবে। নিজের উপর বিশ্বাস রেখে কাজ করুন এবং সবসময় জীবনের লক্ষ্য পূরণের জন্য দৃঢচিত্ত থাকুন।
সবশেষে একটা কথা মনে রাখবেন “জীবনের জন্য নিয়ম, নিয়মের জন্য জীবন না”।

ফেসবুক নিয়ে আরো পড়ুন

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।

Leave a Reply