কেন মেডিটেশন করবেন?

stress-yogaআপনি কেন মেডিটেশন শুরু করবেন এটা জানার আগে জানা জরুরী মেডিটেশন কি। আসুন জেনে নেই মেডিটেশন কি?

মেডিটেশন এমন একধরণের মানসিক ব্যায়াম যা বাড়ায় মনোযোগ, সচেতনতা ও সৃজনশীলতা। মনে সৃষ্টি হয় আত্মবিশ্বাস ও ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি। আর জীবন থেকে দূর হয় হতাশা ও নেতিবাচকতা। মেডিটেশনের মাধ্যমে আমরা আমাদের মনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি, করতে পারি আমাদের মনের গভীরে অবলোকন করার অসীম ক্ষমতা। যার মাধ্যমে অর্জন করতে পারি স্বাস্থ্য, সম্পদ, সম্মান, সফলতা ও জীবন যাপনের সঠিক রাস্তা। মেডিটেশনের অন্যতম উপকারিতা হল টেনশন থেকে মুক্তি লাভ। যার ফলে জীবনে আসে প্রশান্তি আর অনাবিল আনন্দ।

মেডিটেশন করলে আপনি অনায়াসেই শতকরা ৭৫ ভাগ মনোদৈহিক রোগ যেমন মাইগ্রেন, সাইনুসাইটিস, ঘাড়ে-পিঠে-কোমরে বা শরীরের যেকোনো স্থানে দীর্ঘদিনের ব্যথা, হজমের সমস্যা, আইবিএস, এসিডিটি, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, অনিদ্রা প্রভৃতি রোগগুলো থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন। আর অন্যান্য রোগ নিরাময়েও ওষুধ ও সার্জারির পাশাপাশি সুস্থ জীবন-দৃষ্টি এবং মেডিটেশন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

আসুন এবার জেনে নেই যে ৪ টি কারণে আপনিও শুরু করতে পারেন মেডিটেশন।

মেডিটেশন হতাশা কমায়

“Meditation is mind without agitation!” মেডিটেশন করার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপকারিতা হল হতাশা কমানো। আপনি যখনই মেডিটেশন করতে বসেন আপনার মন সবকিছু ছাড়িয়ে যায়। যার ফলে হতাশা, ক্লান্তি, মানসিক অবসাদ সবটা কমে যায়। তাই আপনি যখনই হতাশা বোধ করেন তখনই মেডিটেশন করতে বসতে পারেন। দেখবেন হতাশা আপনাকে দমিয়ে রাখতে বা আপনার জীবনে প্রভাব খাটাতে পারবে না।

মেডিটেশন মনোযোগ শক্তি বৃদ্ধি করে

আপনার মনোযোগ শক্তি বাড়াতে মেডিটেশন মারাত্মক একটা উপায়। মেডিটেশন আমাদের বর্তমান এর উপর মনোযোগ স্থাপন করতে সাহায্য করে। একই সাথে সাহায্য করে আমাদের চারপাশে কি ঘটছে এসবের প্রতি প্রখর দৃষ্টি রাখতে। যার ফলে আপনাআপনি আমাদের মনোযোগ শক্তি বৃদ্ধি পাই। তাই আপনি যদি আজই মেডিটেশন শুরু করেন তাহলে হয়তো আপনি আর আপনার চারপাশের ঘটে যাওয়া কোন কিছুই মিস করে যাবেন না।

মেডিটেশন শারীরিক সুস্থতা বৃদ্ধি করে

মেডিটেশন আমাদের শারীরিক সুস্থতা প্রায় শতভাগ বাড়িয়ে তোলে। ভালো করে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে আমাদের সকল রোগ শোকের মূলে থাকে দুশ্চিন্তা আর দুর্ভাবনা। মেডিটেশন এই দুই কমিয়ে আপনার শরীর ও মন ভালো রাখে। যখন টেনশন নামক বস্তুই আপনার মধ্যে থেকে চলে যাবে তখন আপনার শারীরিক সুস্থতা বাড়তে বাধ্য। সুস্থ জীবন যাপনের জন্য মেডিটেশনের বিকল্প হয়না।

মেডিটেশন আত্ম সচেতনতা বৃদ্ধি করে

মেডিটেশন হল নিজেকে ভালবাসতে শেখানোর সবচেয়ে দ্রুত  সহজতম রাস্তা। যারা প্রতিনিয়ত নিজের প্রতি অন্যায় আর অবিচার করে চলেছেন, নিজের প্রতি আস্থা হারিয়ে হতাশায় জীবন অতিবাহিত করছেন তারা মেডিটেশন শুরু করতে পারেন। মেডিটেশন একমাত্র রাস্তা যা আপনাকে নিজের আত্ম সচেতনতা বাড়িয়ে নিজেকে ভালবাসতে শেখায় সাথে নিজের প্রতি হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে সাহায্য  করে। তাই আর নিজেকে কষ্ট দেওয়ার মাধ্যমে আত্মতৃপ্তি লাভ করার চেষ্টা না চালিয়ে করে বরং নিজেকে ভালোবেসে আত্মসুখ উপলব্ধি করতে আপনি ও শুরু করতে পারেন মেডিটেশন।

একটি প্রশান্ত মন, সুস্থ জীবন ও কর্মব্যস্ত সুখী জীবন যাপনের জন্যেই আপনার প্রয়োজন মেডিটেশন করা।

কোথায় করবেন মেডিটেশন
বাংলাদেশে মেডিটেশন নিয়ে কাজ করছে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনসহ আরো কিছু প্রতিষ্ঠান। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন http://quantummethod.org.bd/

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।

Leave a Reply